• Bloggers
    Bloggers Search for your favorite blogger from this site.

আমাদের চিন্তা, এগিয়ে যাওয়া এবং AddressBangladesh

Posted by on

আমাদের চিন্তা, কাজ এবং AddressBangladesh

২০০০ সালের গোড়ার দিক থেকেই আমরা উন্নয়ন ভাবনায় প্রত্যক্ষভাবে সামিল হই বিশেষকরে আমরা দুই বন্ধু, তারিক(তারিক আলম, এমডি, ডেন) এবং আমি । তারও আগে নব্বই এর দশকের প্রথমভাগে আমাদের পড়াশোনা শেষের দিক পর্যন্ত বন্ধুদের আড্ডায়, তর্কে, ঝগড়ায় আমরা দুজন কোনো না কোনোভাবে সামাজিক পরিবর্তন, উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং সর্বোপরী প্রযুক্তির ব্যবহার বিষয়গুলো নিয়ে আসতাম। কখনো বুঝে, কখনো না বুঝে তর্ক করেছি । কিন্তু তা স্বত্ত্বেও বন্ধুদের মধ্যে আমরা দুজন সবসময় প্রযুক্তিকে উন্নয়নের একটি সেরা মাধ্যম হিসেবে চিন্তা করেছি।  

 

পড়াশোনা শেষে আমি সাংবাদিকতায় যোগ দেই। শুরু করি লেখালেখি। তারিক জয়েন করে গ্রামীণ-এ প্রযুক্তিসম্পৃক্ত কাজে। তখনই অর্থ্যা নববইয়ের মাঝামাঝি থেকে আমরা তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করি। তথ্যপ্রযুক্তি পরিবর্তনের হাওয়া লাগিয়ে দেয় সারা পৃথিবীতে। শিল্প বিপ্লবের পরে মানব সভ্যতার ইতিহাসে  এতো পরিবর্তন আর কিছুতেই হয়নি। আর এতো দ্রুত এবং সমগ্র পৃথিবীকে প্রায় একই সময়ে সম্পৃক্ত করে এরকম আর কোনো প্রযুক্তিই আগে পৃথিবীর মানুষ প্রত্যক্ষ করেনি। পৃথিবীর সমাজ, অর্থনীতি, যোগাযোগ, বাণিজ্য এবং সম্পর্কের ক্ষেত্রে স্বল্পতম সময়ে এলো এক অভূতপূর্ব পরিবর্তন এই তথ্য প্রযুক্তি। এর মধ্যে আমরা তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার এবং উন্নয়নে এর সম্পৃক্ততা নিয়ে ভাবছি, কাজ করছি আর নতুন নতুন নতুন পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখছি।

২০০১ এ উচ্চ শিক্ষার জন্য তারিক আমেরিকা যায়। আমি তখন একটি বিজ্ঞান সাপ্তাহীক এর চিফ রিপোর্টার। আমি ঢাকা তারিক ওয়াশিংটন। আমরা কাজ করছি ইমেল এবং চ্যাটিং এর মাধ্যমে। সেই শুরু। এরপর তারিক দেশে ফিরে এলো। আমরা একসঙ্গে কাজ শরু করলাম। প্রতিষ্ঠা করলাম আমাদের আইটি প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ডেন((DEN- Digital Equality Network))। এরপর আইটি প্রযুক্তি আরো অনেক দূর এগিয়েছে। আমরা গ্রামীণ জনপদে আইটিকে নিয়ে গিয়েছি ২০০৩ এ। যুক্ত হয়েছি টেলিসেন্টার আন্দোলনে। এরপরেই  আমরা তথ্য ও প্রযুক্তিভিত্তিক সেবাকেন্দ্র ঘাট (GHAT- Global House of Advanced Technology) প্রতিষ্ঠা করি। সঙ্গে নির্ভরতার প্রতিক হিসেবে ছিলেন অর্থনীতিবিদ, গবেষক এবং সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। ওই তথ্যকেন্দ্রগুলো তৈরি করে ইতিহাস। দেশের প্রথম সাসটেনেবল মডেল। এমনকি পৃথিবীতে বললেও ভুল হবে না। নিজেদের আয়েই সেন্টারগুলো চলছে। কারো কাছে হাত পাততে হচ্ছে না। আমরা সব সময় চাই মানুষের সাবলম্বীতা। পরনির্ভরশীলতা নয়। সেন্টারের প্রত্যেকে আন্তরীকতা ও পরিশ্রম করে সেটি অর্জন করেছে। শুধু ঘাট নয়, বাংলাদেশে এখন এরকম বহু প্রযুক্তিভিত্তিক সেন্টার রয়েছে যারা পরনির্ভরশীল নয়।

আজ বাংলাদেশে গ্রামীণ জনপদে আইটি পৌঁছে গেছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলে তরুণরা আজ অনলাইনে আউটসোর্স, ফ্রিল্যান্সিং করছে। সরকারও নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। ভাবতে ভালো লাগে যে এই কাজটির শুরুতে আমরা ছিলাম। সেই নিউক্লিয়াস আজ প্রায় একটি দেহতে রূপান্তরীত হয়েছে। এটি নি:সন্দেহে আরো বিকষিত হবে। আমরা সবাই সাবলম্বী ও আত্মমর্যাদাসম্পন্ন হবো। বাংলাদেশে সাফল্যের শীর্ষস্থানে পৌঁছবে। ভিত্তি তৈরি হয়ে গিয়েছে। এখন শুধু দৃঢ় পদক্ষেপে সামনে এগিয়ে চলা।

আমরা কিন্তু থেমে নেই। ভাবছি, নতুন নতুন প্লান করছি। কাজ করে চলেছি। এর মধ্যেই ফেসবুক এর মতো সোস্যাল মিডিয়া এসে সামাজিক যোগাযোগকে আরো একপ্রন্থ এগিয়ে নিয়েছে। এসেছে টুইটার, লিঙ্কডইন, গুগলপ্লাস, পিন্টারেস্ট আরো কতো কী! বাংলাদেশেও নিউজমিডিয়া, ব্লগ এর মতো অনেক উদ্যোগ এখন। আমরা এনেছি AddressBangladesh । একই সঙ্গে সোস্যাল মিডিয়া, ব্লগ এবং নিউজ ও ইন্টারভিউ, ই-লার্নিং, গ্রুপ এন্ড পেইজ ইত্যাদি সেকশন । যোগ করতে যাচ্ছি আরও অনেক ফিচার। আমরা বাংলাশের উন্নয়নের বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়ে AddressBangladesh নামে সোস্যাল মিডিয়া চ্যানেল চালু করেছি। এখানে বাংলাদেশের উন্নয়ন, বাংলাদেশের মানুষ ও সামাজিক বিষয়গুলো প্রাধান্য পাবে। বাংলাদেশের তরুণদের অনুপ্রাণিত এবং উদ্বুদ্ধ করবে। যারা বিদেশে বসবাস করছেন কিন্তু দেশে কনট্রিবিউট করতে চান AddressBangladesh তাদেরও পথ দেখাবে।

আমা
দের বিশ্বাস এখন প্রযুক্তির যে উত্থান ঘটছে তা বাংলাদেশকে অনেক দূরে নিয়ে যাবে। আমাদের মতো দেশ কটি আছে পৃথিবীতে? পৃথিবীর কোথায় এরকম বছরে ১২মাসই প্রডাকসন হয়কোথায় এতো স্বল্প শিক্ষা নিয়েও মেয়েরা দেশের উন্নয়নে সিংহভাগ কনট্রিবিউশন করেন? কোথায় এতো উর্বরা মাটি ফসলে ফসলে ভরে দেয়? কোথায় এতো সংখ্যক কর্মোপযুক্ত তারুণ্য রয়েছে? প্রযুক্তির উন্নয়নের এই ধারাই আমাদের রাজনীতিকে পরিশীলিত করবে, সুশাসন প্রতিষ্ঠা হবে। একদিন সবচে কম দূর্নীতির দেশ হিসেবেও বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা পাবে। শুধু দেশের প্রতি ভালোবাসা প্রয়োজন। নিজেকে স রেখে আমরা যদি পরিশ্রম করে যেতে পারি বাংলাদেশের পরিবর্তন অনিবার্য।

 

AddressBangladesh কি কেন এবং এর লক্ষ্য

AddressBangladesh একটি সোস্যাল মিডিয়া চ্যানেল। এটি অরাজনৈতিক এবং সমাজের সকল শ্রেণী ও পেশার মানুষের উন্নয়ন ভাবনা প্রকাশের উন্মুক্ত প্লাটফর্ম। AddressBangladesh-এÑ

  > আইডিয়া ও স্টোরি শেয়ার করতে পারেন

  > নিজের প্রোফাইল তৈরি ও বন্ধুত্বের নেটওয়ার্ক তৈরি করতে পারেন

  > উন্নয়ন বিষয়ক ভাবনা শেয়ার, আলোচনা ও ইভেন্টে অংশগ্রহণ করতে পারেন

  > উন্নয়ন ও সাফল্যের কাহিনী পড়তে, লিখতে, শুনতে এবং দেখতে পারেন 

AddressBangladesh এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যÑ

   > সোস্যাল নেটওয়ার্কভিত্তিক বাংলাদেশের উন্নয়ন বিষয়ক আলোচনার একটি প্লাটফর্ম তৈরি করা

  > বিভিন্ন উন্নয়নমূলক ইস্যুভিত্তিক ইভেন্ট, সাক্ষাকার, আলোচনা অনুষ্ঠান উপস্থাপন করা এবং

  > নতুন নতুন আইডিয়া এবং সাফল্যের কাহিনীর মাধ্যমে মানুষকে অনুপ্রাণিত করা।

AddressBangladesh আপনার প্রোফাইল তৈরি করুন। বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্পর্কিত আপনার যে কোন নতুন আইডিয়া, সাফল্যের কাহিনী, কিংবা আপনার মতামত এষানে উপস্থাপন করুন। অংশগ্রহণ করুন উন্নয়ন বিষয়ক আলোচনায় এবং তৈরি করুন নিজস্ব নেটওয়ার্ক। বাংলাদেশের উন্নয়নে আপনার একটি ছোট মতামত কিংবা উদ্যোগের কাহিনী অন্যদের অনুপ্রাণিত করতে পারে। বদলে দিতে পারে অনেক কিছু। নিজের ভাবনা প্রকাশ করুন, অন্যকেও প্রকাশ করার জন্য উসাহ দিন। AddressBangladesh আপনার চিন্তা ও মত প্রকাশের প্রকাশের নিজস্ব স্থান।

 

আরও AddressBangladesh

 

এটুকুই মাত্র নয়। আরও অনেক কিছুই থাকবে এখানে। তরুণদের জন্য উপযুক্ত ট্রেনিং, ভলান্টিয়ার ইনভলমেন্ট, সমাজকর্ম, তথ্য, দূর্যোগ ব্যবস্থপনা ট্রেনিং, সহযোগিতা,ভালো কাজের প্রচারণা(শিক্ষা, সংস্কৃতি, কল্যাণ উদ্যোগ ইত্যাদি)সহ নানাবিধ কর্মকাণ্ড। AddressBangladesh এর সঙ্গে থাকুন, আমরাও আপনার সঙ্গে আছি। বাংলাদেশ আমাদের সঙ্গে আছে।

Last modified on

Comments

  • mahmud tokon
    mahmud tokon Saturday, 26 July 2014

    AddressBangladesh কি কেন এবং এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

  • Tariq Alam
    Tariq Alam Thursday, 31 July 2014

    Good writing. From mobile phone

    Reply Cancel

Leave your comment

Guest Saturday, 24 June 2017

Top Rated Posts

AddressBangladesh কি এবং কেন ?
নৈতিকতাবিহীন শিক্ষাই হলো সবচেয়ে ভয়ংকর !!!
মানুষ যদি না হয় মানুষ ---
আল বিরুনি
আমাদের চিন্তা, এগিয়ে যাওয়া এবং AddressBangladesh